BSS

পিরোজপুরে ৪৪টি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ঠিকানা বীরনিবাস


জেলায় বীর নিবাসে ৪৪টি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের নিজস্ব ঠিকানা হয়েছে।
জেলার ৭ উপজেলায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পিরোজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় ৪৪টি বীর নিবাস ভবন নির্মাণ করে তা ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের জুন মাসে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে হস্তান্তর করেছেন। প্রতিটি ভবন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৯ লাখ ২৫ হাজার টাকা। ৪৪টি ভবন নির্মাণে সরকার ৪ কোটি ৭ লাখ খরচ করে ভূমিহীন অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের আরামে বসবাস করার সুব্যবস্থা করে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন পিরোজপুর সদর উপজেলার সাবেক কমান্ডার হুমায়ুন কবির খোকন।
এলজিইডি’র পিরোজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায় জানান, পিরোজপুর সদরে ৭টি, ভান্ডারিয়ায় ৭টি, কাউখালীতে ৫টি, ইন্দুরকানীতে ২টি, মঠবাড়িয়ায় ৯টি, নাজিরপুরে ৭টি এবং নেছারাবাদে ৭টি বীর নিবাসের নির্মাণকাজ শেষ করে মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ৫ শতাধিক বর্গফুটের এসব ভবনে শয়ন কক্ষ, রান্নাঘর, বাথরুম ছাড়াও গোয়াল ঘর ও মুরগী পালনের আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতিটি ভবনে টিউবওয়েলও বসানো হয়েছে ১টি করে।
পিরোজপুর সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের তেজদাসকাঠী গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা হামজেদ মাঝি জানান নিজের কোন ঘর এতদিন ছিল না। আজ বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের তৈরি করা পাকা ভবনে পরিবার পরিজন নিয়ে নিশ্চিন্তে বসবাস করছি এবং প্রতিমাসে তার সরকারের দেওয়া ১০ হাজার টাকা ভাতা উত্তোলন করছি।
বাসস/সংবাদদাতা/রশিদ/১৩০৫/নূসী

1 2 3 4 5